ফিটনেসবিহীন লক্কড়ঝক্কড় গাড়িতে টহল দিচ্ছেন ভৈরব হাইওয়ে থানা পুলিশ 


রুদ্রবাংলা প্রকাশের সময় : মার্চ ২১, ২০২৪, ১৫:০৫ /
ফিটনেসবিহীন লক্কড়ঝক্কড় গাড়িতে টহল দিচ্ছেন ভৈরব হাইওয়ে থানা পুলিশ 

ভৈরব থেকে রফিকুল ইসলাম রুবেলঃ

ফিটনেসবিহীন গাড়িতে চড়ে হাইওয়ে পুলিশ চেক করছেন গাড়ির ফিটনেস। ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক ও ভৈরব-কিশোরগঞ্জ আঞ্চলিক সড়কের নিরাপদ সড়কসহ সড়কে ফিটনেসবিহীন যান চলাচল বন্ধ করার লক্ষ্যে নিয়মিত টহলে যাচ্ছেন ভৈরব হাইওয়ে থানা পুলিশ ফিটনেসবিহীন গাড়িতে চড়ে।

 

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের ভৈরবের শেষ প্রান্তে নরসিংদী জেলার মাহমুদাবাদ এলাকায় একটি লক্কড়ঝক্কড় গাড়িতে টহল দিচ্ছেন ভৈরব হাইওয়ে থানার চার-পাঁচজন পুলিশ সদস্য। গাড়িটির রং নষ্ট হয়ে গেছে। সামনের দুটি হেডলাইট আছে, কিন্তু ডানে-বাঁয়ে মোড় নির্দেশক এন্টিকাটার বাতি নেই। বাম্পারে ভাঙ্গন রয়েছে। কয়েক জায়গায় তার দিয়ে বাঁধা। কিছু অংশে ঝালাই দেওয়া। চলছে খুব ধীরগতিতে। সামনের দুই দরজাও নড়বড়ে, দরজার লক ভাঙা রয়েছে।

পুলিশের গাড়ির চালক জানান, গাড়িটি অনেক পুরোনো। মাঝেমধ্যেই পথে ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে যায়। তখন সবাই মিলে ধাক্কা দিয়ে চালু করতে হয়। এইভাবে প্রতিদিন মহাসড়কে টহল দিতে ঝুঁকি নিয়েই গাড়ি নিয়ে বের হতে হয়।

 

টহলে থাকা ভৈরব হাইওয়ে থানার কর্মরত এক এসআই বলেন, ঝুঁকি নিয়েই ফিটনেসবিহীন গাড়িতে চড়েই প্রতিদিন ডিউটিতে যেতে হয়। থানায় দুটি গাড়ি আছে দুটি গাড়িই একই অবস্থা।

 

ভৈরব হাইওয়ে থানার (ওসি) মো. সাজু মিঞা বলেন, শুধু আমাদের থানার গাড়ির অবস্থা খারাপ নয়। দেশের অধিকাংশ হাইওয়ে থানার গাড়ির বেহাল অবস্থা। ফিটনেস বিহীন গাড়িতেই চলতে হচ্ছে। কিন্তু দুটি গাড়ির বিষয়ে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। আশা করছি আমাদের থানায় খুব দ্রুত সময়ের মধ্যই নতুন গাড়ি যুক্ত হবে।

 

এ বিষয়ে গাজীপুর হাইওয়ে রিজিয়নের পুলিশ সুপার মো. মোস্তাফিজুর রহমান মুঠোফোনে জানান, আমাদের হাইওয়ে থানাগুলিতে পুরাতন গাড়ি রয়েছে। তবে সেসব গাড়িগুলি পরির্বতনের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। দ্রুত সময়ের মধ্য সকল হাইওয়ে থানায় আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর নতুন গাড়ি যুক্ত হবে।