আগামীর তরুণ শিল্পী আফিয়া তাবাস্সুম


রুদ্রবাংলা প্রকাশের সময় : নভেম্বর ৮, ২০২৩, ১৬:৩৪ /
আগামীর তরুণ শিল্পী আফিয়া তাবাস্সুম

আফিয়া তাবাস্সুম; দর্শকের কাছে তিনি ‘বর্ণ’ নামে পরিচিত। এক ফটোশুটে নির্ধারিত মডেল হাজির না হওয়ায় কপাল খুলেছিল তাঁর, ক্যামেরার পেছন থেকে সামনে আসেন। ক্যামেরার পেছনে কাজ করতে চেয়েছিলেন আফিয়া তাবাস্সুম।

মডেলিংয়ে ক্যারিয়ার শুরুর বছরখানেকের ব্যবধানে নাম লেখান নির্মাতা আবদুল্লাহ মোহাম্মদ সাদের ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ সিনেমায়। কান চলচ্চিত্র উৎসবে বাংলাদেশ থেকে প্রথমবার মনোনয়ন পাওয়া সেই সিনেমায় ‘অ্যানি’ চরিত্রে অভিনয় করে পরিচিতি পান বর্ণ। এ বছর হইচইয়ে মুক্তিপ্রাপ্ত ইয়াসির আল হকের ওয়েব সিরিজ সাড়ে ষোলো–তে ‘নাতাশা’ চরিত্রে অভিনয় করে আলোচিত হয়েছেন তিনি।

কখনো অসহায়, কখনো শক্তিশালী; আবার অন্তরঙ্গ দৃশ্যেও সাবলীলভাবে নিজেকে মেলে ধরেছেন বর্ণ। সাড়ে ষোলো মুক্তির পর একের পর এক কাজের প্রস্তাব পাচ্ছেন, তবে বেশির ভাগ চরিত্রেই নাতাশার ছায়া রয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার প্রথম আলোকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বর্ণ বলেন, ‘নির্মাতাদের অনেকেই আমাকে নাতাশার মতো চরিত্র করার প্রস্তাব দিচ্ছেন। কিন্তু আমি একটা চরিত্রেই আটকে থাকেত চাই না, কোনো গণ্ডিতে বাঁধা পড়তে চাই না।’
বছর চারেকের ক্যারিয়ারে ‘রেহানা মরিয়ম নূর’, ‘সাড়ে ষোলো’ ছাড়া চরকির ‘মারকিউলিস’ সিরিজেও অভিনয় করেছেন বর্ণ। প্রতিটি সিনেমা ও সিরিজে আলাদা আলাদা চরিত্রে দেখা গেছে তাঁকে।

‘ধীরে চলো’ নীতিতে বিশ্বাসী বর্ণ জানান, পছন্দের চিত্রনাট্যের জন্য অপেক্ষায় থাকবেন, তবু যাচ্ছেতাই কাজ করবেন না, ‘অভিনয় করতে আমার ভালো লাগে। সুযোগ পেলে ক্যারিয়ারটা অনেক দূর নিয়ে যেতে চাই, অনেক সময় নিয়ে অল্প কাজ করছি।’
ইতিমধ্যে একটি বড় আয়োজনের সিনেমায় নাম লিখিয়েছেন বর্ণ, আপাতত সেটি নিয়েই আছেন। একটি স্বল্পদৈর্ঘ্যের কাজ শেষ করেছেন। ঈদের টুকটাক কয়েকটি নাটকে দেখা যেতে পারে তাঁকে।

ইউনিভার্সিটি অব লিবারেল আর্টস বাংলাদেশে (ইউল্যাব) ইংরেজিতে পড়েছেন বগুড়ার মেয়ে বর্ণ। ২০১৮ সালে আলোকচিত্রী কৌশিক ইকবালের সহকারী হিসেবে ক্যারিয়ার শুরু করেন তিনি। নির্ধারিত মডেল না আসায় মডেল হিসেবে আবির্ভূত হয়েছিলেন বর্ণ, এরপর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাঁকে।