কাউখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কোয়ার্টারে বিনা ভাড়ায় থাকছেন কর্মকর্তা- কর্মচারীরা


রুদ্রবাংলা প্রকাশের সময় : নভেম্বর ৩, ২০২৩, ২১:৫১ /
কাউখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কোয়ার্টারে বিনা ভাড়ায় থাকছেন কর্মকর্তা- কর্মচারীরা

পিরোজপুর প্রতিনিধি : পিরোজপুরের কাউখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা-কর্মচারীরা সরকারি কোয়ার্টারে থেকেও ভাড়া দেন না বলে অভিযোগ উঠেছে। কেউ কেউ একটি বাসা ভাড়া নিয়ে পুরো ৬টি বাসায় থাকছেন। তারা বছরের পর বছর বিনা ভাড়ায় বাস করছেন সরকারী বাসায়। ‘কোয়ার্টারে নিয়মবহির্ভূতভাবে ভাড়া থাকার কারনে সরকার প্রতি মাসে হারাচ্ছে অর্ধ লক্ষাধিক টাকার রাজস্ব।
সংশিষ্ট সূত্র জানায়,স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রথম শ্রেনীর চার তলা বিশিষ্ট কর্মকর্তা কোয়ার্টারে বিনা ভাড়ায় বসবাস করছেন উপজেলা স্বাস্থ্য পঃপঃ কর্মকর্তা ডাঃ সুজন সাহা সহ একজন আবাসিক মেডিকেল অফিসার, একজন মেডিকেল অফিসার, একজন কমিউনিটি ক্লিনিকের সিএইচসিপি। হাসপাতালের তৃতীয় শ্রেনীর তিন তলা বিশিষ্ট একটি কোয়ার্টারের ৬টি ইউনিটি এ দীর্ঘদিন ধরে বাস করছেন মেডিকেল টেকনোলজিষ্ট (রেডিও:). অফিস সহকারী কামমুদ্রাক্ষরিক, মেডিকেল টেকনোলজিষ্ট (ইপিআই), এম্বুলেন্স ড্রাইভার, কুক/মশালচি, অফিস সহকারী সহ আরও দুইজন পরিবার নিয়ে বাস করছেন। অথচ তাঁদের নামে সরকারিভাবে কোনো বরাদ্দ নেওয়া হয়নি। এর মধ্য চতুর্থ শ্রেনী কর্মচারী শাহানার নামে বাড়ি ভাড়া দিচ্ছেন। অপরদিকে হাসপাতালের চতুর্থ শ্রেনীর দ্বিতল ভবনের আরেকটি কোয়ার্টার স্বাস্থ্য সহকারি তানিয়া আক্তারের নামে বরাদ্দ নিলেও তিনি থাকেন না ওই কোয়ার্টারে সেখানে থাকেন একজন ড্রাইভার (আউট সোসিং), অফিস সহায়ক একজন, ঝাড়ুদার একজন, উপ-সহকারী কমি:মেডি:কর্মকর্তা(স্যাকমো) একজন।
কাউখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কর্মচারী বলেন, ‘সরকারি কোয়ার্টার পরিচালনার জন্য ৫ থেকে শুরু করে ১১ সদস্যবিশিষ্ট কমিটি থাকার কথা। কিন্তু কাউখালী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কোয়ার্টার পরিচালনার জন্য কোনো কমিটি নেই। এ কারণে সংশ্লিষ্টদের আর্থিক সুবিধা দিয়ে অনেকেই নিয়মবহির্ভূতভাবে কোয়ার্টারে থাকছেন। তাছাড়া আবাসিক মেডিকেল অফিসারও কোয়ার্টারে থাকেন না।

ভাড়া না দিয়ে সরকারি বাসায় থাকা- এ বিষয়ে জানতে চাইলে পিরোজপুরের সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ হাসনাত ইউসুফ জাকি বলেন, এ বিষয়গুলো অবগত নই। তবে বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হবে বলে জানান এই কর্মকর্তা।