ইজিবাইক চালক ছালাম হত্যা মামলার আসামী হাং খিলগাঁও থেকে আটক


রুদ্রবাংলা প্রকাশের সময় : অক্টোবর ৮, ২০২৩, ১২:০৬ /
ইজিবাইক চালক ছালাম হত্যা মামলার আসামী হাং খিলগাঁও থেকে আটক

জিয়াউর রহমান জিয়াঃ _ রাজধানীর খিলগাঁও এলাকা থেকে বরিশালের বানারীপাড়া এলাকায় ইজিবাইক চালক ছালামকে নৃশংসভাবে পিটিয়ে হত্যা মামলায় এজাহারনামীয় পলাতক আসামী হাংকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)।

র‌্যাব বলছে, গ্রেফতারকৃত ব্যক্তির নাম মোঃ ইয়াসিন হাং (২৫)। সে বরিশাল জেলার বানারীপাড়া থানার চৌয়ারীপাড়া গ্রামের মোঃ আঃ রব হাং এর পুত্র। ছালাম হত্যা মামলার ৪ নম্বর আসামী সে। আজ শুক্রবার সকালে র‌্যাব-৩ এর সিনিয়র সহকারী পরিচালক স্টাফ অফিসার (মিডিয়া) মোঃ আরিফুর রহমান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পৌনে ৬ টার দিকে রাজধানীর খিলগাঁও এলাকা থেকে বরিশালের বানারীপাড়া এলাকায় ইজিবাইক চালক সালাম বেপারীকে নৃশংসভাবে পিটিয়ে হত্যা মামলার এজাহারনামীয় পলাতক আসামী মোঃ ইয়াসিন হাং (২৫)কে আটক করতে সক্ষম হয়। তিনি জানান, এসময় তার নিকট থেকে ১ টি মোবাইলফোন এবং নগদ ১৫৩০ টাকা উদ্বার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ও মামলার সূত্রে জানা যায়, ভিকটিম সালাম বেপারী একজন ইজিবাইক চালক।

২০২৩ সালের ২৮ আগস্ট দিবাগত সাড়ে ৩ টার দিকে বরিশাল জেলার বানারীপাড়া থানার চৌয়ারীপাড়া এলাকায় ইজিবাইক চালিয়ে রাস্তা অতিক্রমের সময় আসামীরা রাস্তায় গাছ ফেলে গতিরোধের চেষ্টা করে। ভয় পেয়ে ভিকটিম ছালাম দ্রুত গাড়ি চালিয়ে চলে যেতে চাইলে হামলাকারীরা ইজিবাইকের সামনের গ্লাসে লাঠি দিয়ে আঘাত করে। ফলে ইজিবাইকের কাঁচ ভেঙে যায় এবং ছালাম তার গাড়ির নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ফেলে। পরে গাড়িটি সড়কের পাশে একটি গাছের সঙ্গে ধাক্কা লেগে থেমে যায়। পরবর্তীতে ওই আসামীগণ ছালামকে ইজিবাইক চোর আখ্যা দিয়ে বেধড়ক পিটুনি দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ এসে মুমূর্ষু অবস্থায় ভিকটিমকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এই ঘটনায় ভিকটিমের ছেলে মোঃ সাব্বির বেপারী বাদী হয়ে সুনির্দিষ্ট ১৪ জন অজ্ঞাত নামা-১০/১৫ জনসহ সর্ব মোট ২৯ জনকে আসামী করে বানারীপাড়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলার পর থেকে আটককৃত আসামী মোঃ ইয়াসিন হাংস্থান পরিবর্তন করে রাজধানীর খিলগাঁওসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় পলাতক জীবন যাপন করে আসছিল।

র‌্যাব সূত্র বলছে, ইতিপূর্বে এ হত্যা মামলায় ৫ জন আসামীকে পুলিশ গ্রেফতার করেছিল।তারা এখন জেল হাজতে আছে। তার মধ্যে ইয়াসিন হাং ছালাম হত্যা মামলার ৪ নম্বর আসামী ছিল। ভিকটিমের ইজিবাইকটি বানারীপাড়া থানায় পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। জিঙ্গাসাবাদ শেষে আটককৃহ হত্যা মামলার আসামী ইয়াসিন হাংকে বরিশালের বানারীপাড়া থানা পুলিশের নিকট সোপর্দ করা হয়েছে বলে জানান র‌্যাবের এ কর্মকর্তা।