গোপালগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় বসতঘর ভাংচুর, আহত -৩, থানায় অভিযোগ দায়ের


রুদ্রবাংলা প্রকাশের সময় : সেপ্টেম্বর ৪, ২০২৩, ২৩:৪৫ /
গোপালগঞ্জে প্রতিপক্ষের হামলায় বসতঘর ভাংচুর, আহত -৩, থানায় অভিযোগ দায়ের

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধিঃ গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার চন্দ্রদিঘলিয়া ইউনিয়নের খাগড়াডাঙ্গা গ্রামে গত বৃহস্পতিবার (৩১ আগস্ট) সন্ধ্যা আনুমানিক ৬ টায় পূর্ব শত্রুতার জেরে প্রভাবশালী এডভোকেট খন্দকার রবিউল ইসলামের নেতৃত্বে তার ভাই দিদার খন্দকার, লিটু খন্দকার, তার বোন গোপালগঞ্জ সদর হাসপাতালে কর্মরত সিনিয়র নার্স ছালেহা বেগম দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে প্রতিবেশী আরোজ আলী খন্দকারের বসতঘর ভাংচুর করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

এসময় হামলাকারীদের আঘাতে চিকনা বেগম (৪৫), হোসনে আরা বেগম (৪০), তারিক খন্দকার (৪২)—কে মারাত্মকভাবে আহত করে প্রতিপক্ষ। পরে স্থানীয়রা এবং স্বজনেরা গুরুতর আহত অবস্থায় তাদেরকে উদ্ধার করে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করেন। এর আগে হামলা চালিয়ে প্রতিপক্ষ সুকৌশলে জরুরী সেবা ৯৯৯ -এ কল করে ঘটনা স্থলে পুলিশ নিয়ে এলাকায় ভালো সাজেন বলে দাবি ভুক্তভোগীদের।

এছাড়াও প্রতিপক্ষের এডভোকেট খন্দকার রবিউল ইসলাম তার নার্স বোনের সহযোগিতায় স্বেচ্ছায় নিজে ক্ষত করে হাসপাতালের সার্টিফিকেট নিয়ে পাল্টা মামলা দেওয়ার পায়তারা চালাচ্ছেন বলে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগীরা। আমরা গরীব, অসহায় মানুষ। আমাদের তেমন কোন অর্থ- কড়িও নেই। সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে আমরা দোষীদের শাস্তির দাবি জানাই। এ সংক্রান্তে গোপালগঞ্জ সদর থানায় গত ৩ সেপ্টেম্বর একটি মামলা দায়ের করেছেন, মামলা নং -০৫ বলে গণমাধ্যমকে জানান হামলার শিকার ভুক্তভোগীর স্বজনেরা। গোপালগঞ্জ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ আনিচুর রহমান বলেন, অভিযোগ পেয়েছি দ্রুত আইনী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।